দৃঢ় প্রত্যয় কাকে বলে দৃঢ় প্রত্যয়ের গুরুত্ব

দৃঢ় প্রত্যয় কাকে বলে : দৃঢ় প্রত্যয়ের গুরুত্ব

দৃঢ় প্রত্যয় কাকে বলে : লক্ষ্য অর্জনে চাই ইস্পাত কঠিন দৃঢ়তা। এছাড়া কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন কিংবা স্বপ্নপূরণ হয় না। এ কঠিন প্রতিজ্ঞার অপর নাম দৃঢ় প্রত্যয় । দৃঢ় প্রত্যয়ের সাথে লক্ষ্য অর্জন ও স্বপ্ন পূরণ হওয়ার সম্পর্ক খুবই নিবিড়। ব্যাপক আগ্রহ ও সুদৃঢ় মনােবলসহ কোনাে কাজ করাই দৃঢ় প্রত্যয়। দৃঢ় প্রত্যয়ীরা কোনাে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়ে সে কাজের বাস্তবায়নে অটুট থাকে। 

দৃঢ় প্রত্যয় কাকে বলে : দৃঢ় প্রত্যয়ের গুরুত্ব

দৃঢ় প্রত্যয় কাকে বলে  দৃঢ় প্রত্যয়ের গুরুত্ব

দৃঢ় প্রত্যয়ের গুরুত্ব 

প্রত্যেক মানুষের জীবনে দৃঢ় প্রত্যয়ের গুরুত্ব অনেক। দৃঢ় প্রত্যয় না থাকলে নিজের ক্যারিয়ারকে প্রতিষ্ঠা করা কঠিন। দৃঢ় প্রত্যয়ের সাথে কোনাে কাজ শুরু করলে লক্ষ্য অর্জনের নিশ্চয়তা থাকে। কারণ দৃঢ় প্রত্যয়ীরা কখনাে তাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য থেকে পিছু হটে না বরং তারা যেকোনাে উপায়ে শেষ পর্যন্ত লক্ষ্যে পৌছে। দৃঢ় প্রত্যয়ের সাথে কোনাে কাজ শুরু করলে তা সময়মতাে সম্পন্ন হয়। লক্ষ্য অভিমুখে আপ্রাণ প্রচেষ্টা থাকার ফলে কাজগুলাে একটির পর একটি সম্পূর্ণ হতে থাকে।

দৃঢ় প্রত্যয়ী হওয়ার উপায় 

দৃঢ় প্রত্যয়ী হওয়ার জন্য সবার আগে প্রয়ােজন স্বপ্ন বা নির্দিষ্ট লক্ষ্য। কারণ কোনাে লক্ষ্য বা স্বপ্ন না থাকলে লক্ষ্যমুখী কোনাে তৎপরতা থাকে না। এ ধরনের উদ্যোগ ছাড়া দৃঢ় প্রত্যয়ী হওয়ার সুযােগ থাকে না। তবে স্বপ্ন এবং কাঙিক্ষত লক্ষ্য অবশ্যই বাস্তবসম্মত হতে হবে। বাস্তবের সাথে মিল নেই, জীবনের জন্য আবশ্যকীয় নয় বা বাস্তবে তা অর্জন সুদূর পরাহত এমন বিষয়ে দৃঢ় প্রত্যয়ী হলে লক্ষ্যকেন্দ্রিক সকল তৎপরতা হবে পণ্ডশ্রম। 

কাক্ষিত স্বপ্ন পূরণের জন্য যে যে দক্ষতা আবশ্যক তা থাকতে হবে। লক্ষ্যের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রয়ােজনীয় দক্ষতা না থাকলে কাজের শুরুতেই হোঁচট খেতে হবে। কেউ যদি লক্ষ্য স্থির করে তা অর্জনের জন্য প্রাণপণ চেষ্টা না করে তবে লক্ষ্য অর্জন সম্ভব হয় না। দৃঢ় প্রত্যয়ী হতে হলে নিজের মধ্যে লক্ষ্য অর্জনের প্রবল আকাঙ্ক্ষা থাকতে হবে। 

কোনাে লক্ষ্যস্থির করলে তা সম্পর্কে পূর্বাপর ভেবে নেওয়া জরুরি। লক্ষ্যের ভালােমন্দ সম্পর্কে জানা ও সচেতন থাকা উচিত। লক্ষ্য সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা ও সচেতনতা মানুষকে দৃঢ় প্রত্যয়ী করে তােলে।

ক্যারিয়ার গঠনে দৃঢ় প্রত্যয়ের ভূমিকা 

ব্যক্তিগত জীবনে যারা দৃঢ় প্রত্যয়ী তারা সবসময় তাদের স্বপ্ন পূরণের কাছাকাছি অবস্থান করে। ক্যারিয়ারমুখী তৎপরতার কারণে তারা তাদের স্বপ্ন পূরণ করতে সক্ষম হয়। এতে ক্যারিয়ারে সফলতা লাভ করা যায়। যারা দৃঢ় প্রত্যয়ী তারা তাদের ক্যারিয়ারে কখনাে এক জায়গায় থেমে থাকে না।

তাদের জীবনে একটার পর একটা সাফল্য আসতে থাকে এবং একসময় তারা সাফল্যের চুড়ান্ত শিখরে আরােহণ করে। যেমন- দৃঢ় প্রত্যয় থাকার কারণে আমাদের মুসা ইব্রাহিম, এম এ মুহিত, নিশাত মজুমদার ও ওয়াসফিয়া নাজনীন এভারেস্ট জয় করেন। এই ধরনের আরও পোষ্ট পেতে আমাদের poramorso24.com নিয়মিত ভিজিট করুন । ধর্যসহকারে পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

  1. নান্দনিক দৃষ্টিভঙ্গি 
  2. আদর্শ নেতৃত্বের গুণাবলী
  3. সময় ব্যবস্থাপনার কৌশল
  4. আত্মকর্মসংস্থান বলতে কী বুঝি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *